১ ক্লিকে তৈরি করুন ওয়েবসাইট – ওয়েবসাইট বানানোর সহজ উপায়

 সাম্প্রতিক সময়ে একটি ওয়েব সার্ভে রিপোর্টে উঠে এসেছে, এখন পর্যন্ত প্রায় ১,৯২০,৭৯৫,২৭০ একটিভ ওয়েবসাইট রয়েছে ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবে এবং প্রত্যেক ২৪ ঘণ্টায় ৫,৪৭,২০০ নতুন ওয়েবসাইট তৈরি হচ্ছে। ডিজিটালাইজেশনের এই যুগে ওয়েবসাইটের গুরুত্ব কতটুকু তা বলার অপেক্ষা রাখে না। 

আমাদের দেশের পূর্বের তুলনায় ইন্টারনেটের বিস্তার বহুগুণে বৃদ্ধি পেয়েছে। কি পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে করোনার ভাইরাসের এই মহামারী সময়ে তা সবাই দেখেছি। আইটি বিশেষজ্ঞদের মতে করোনার প্রভাব অনান্য সেক্টরে যেমনই পরুক না কেন আইটি সেক্টরের জন্য তা আশীর্বাদস্বরূপ হয়ে এসেছে, তাঁদের মতে বাংলাদেশে যেটা ১০ বছর পর হতো করোনার এই সময়ে তা এখনই শুরু হয়ে গেছে, অর্থাৎ আইটি ইন্ড্রাটি ১০ বছর সামনে এগিয়ে গেছে।

সব কিছু পরিবর্তন হচ্ছে, প্রচলিত ধারাবাধা নিয়ম পাল্টে যাচ্ছে। প্রযুক্তির ছোয়া এখন সর্বস্তরে । এই দিক থেকে ব্যবসা বাণিজ্যও পিছিয়ে নেই, ইন্টারনেটে ব্যবসা বাণিজ্যর কাজ,কর্ম,প্রচার-প্রচারণা রমরমাট ভাবে শুরু হয়ে গেছে। ব্যবসায়ীরা বুঝতে পেরেছে তাঁদের ব্যবসার ভবিষ্যত কি। আপনি যদি একজন ব্যবসায়ী হয়ে থাকেন আর এখনো সেটা না বুঝতে পেরে থাকেন তাহলে এখনো অনেক পিছিয়ে আছেন। বিল গেটর্স এর একটা জনপ্রিয় উক্তি আছে ( If your business is not on the Internet, then your business will be out of business ) উক্তিটি আজকের এই যুগে একদমই সঠিক। ডিজিটাল এই সময়ে আপনার ব্যবসা যদি ইন্টারনেটে না থাকে, তাহলে আপনার ব্যবসা খুব বেশি গ্রো করতে পারবে না, একটা নিদির্ষ্ট গন্ডিতেই আপনার ব্যবসা রয়ে যাবে।

ওয়েবসাইট কি? ওয়েবসাইট কেন দরকার?

ব্যবসা,বাণিজ্য,চাকরি,এন্টারটেনমেন্ট,প্যাশন,যোগাযোগ,তথ্য যেটার কথাই বলেন না কেন, সব কিছুর জন্য প্রয়োজন ওয়েবসাইট। ওয়েবসাইট ছাড়া ইন্টারনেটে ভালোভাবে নিজের অবস্থান জানান দিতে পারবেন না। বিষয়টা এমন না যে, আমরা ওয়েবসাইটের গুরত্ব সম্পর্কে সবাই জানি না। আমরা অনেকেই জানি ওয়েবসাইট প্রয়োজন, কিন্তু ওয়েবসাইট বানাতে গেলে তো অনেক ঝামেলা পোহাতে হবে, সেই সাথে ব্যায়বহুল ও বটে। ডোমেইন হোস্টিং কেনা থেকে শুরু করে ওয়েব ডেভেলোপারের হায়ার করা অনেক কিছু করতে হবে। 

এইসব সমস্যার কারণেই ওয়েবসাইট তৈরি করার বিষয়টা অনেকেই এড়িয়ে যাই। ওয়েবাসইট বানানোর বদলে ফেসবুকে পেজ,গ্রুপ খুলি, ইউটিউবে চ্যানেল খুলে প্রয়োজনীয় কাজ-কর্ম শুরু করি। কিন্তু আপনে কি জানেন ফেসবুক পেজ খুলতে যত দক্ষতা এবং সময় লাগে তাঁর থেকে কম সময়ে মাত্র ১ ক্লিকে একটি ওয়েবসাইট বানিয়ে ফেলতে পারবেন? 

হ্যাঁ ঠিকই শুনেছেন, ওয়েবসাইট বানাতে গিয়ে যেন কোন রকম সমস্যায় না পড়তে হয় এবং সেই সাথে ফ্রিতেই ওয়েবসাইট বানানো যায় এই বিষয়টি মাথায় রেখেই আইটি নাট হোস্টিং তৈরি করেছে আইটি নাট ওয়েবসাইট বিল্ডার। আজকে আমরা দেখবো কিভাবে খুব সহজে আইটি নাট ওয়েবসাইট বিল্ডার ব্যবহার করে আপনার কাঙ্খিত ওয়েবসাইট তৈরি করবেন।

ওয়েবসাইট বানানোর সহজ উপায়

  সর্ব প্রথম আপনার সি-প্যানেলে লগিন করে নিন।

তাঁরপর সি-প্যানেলে সার্চ বারে গিয়ে টাইপ করুন- IT Nut Website Builder


 IT Nut Website Builder সিলেক্ট করুন।

create a new site অপশনে ক্লিক করুন।

Get Started এ ক্লিক করুন।

Categories থেকে আপনার পচ্ছন্দ অনুযায়ী ক্যাটেগরী সিলেক্ট করুন।

ক্যাটেগরী সিলেক্ট করার পর আপনার পচ্ছন্দ অনুযায়ী থিম সিলেক্ট করুন।

যদি একাধিক ডোমেইন থাকে তাহলে যে ডোমেইন ওয়েবসাইট রান করাতে চাচ্ছেন তা সিলেক্ট করুন এবং সি প্যানেলের কোন ডিরেক্টরিতে সাইট ইনস্টল করতে চাচ্ছেন সেটা লিখে দেন, যদি আপনার বুঝতে অসুবিধা হয় তাহলে Site Address অপশনে কিছু করার দরকার নেই, যেমন আছে তেমনি রেখে দিন।

Admin Email এ আপনার ই-মেইল আইডি লিখুন।

Site Title এ আপনার ওয়েবসাইটের একটি টাইটেল লিখুন।

এরপর Proceed With Install ক্লিক করুন।

অভিনন্দন আপনার ওয়েবসাইট বানানো কম্পিলট, Return to Sites ক্লিক করুন।

এখন আপনার ডোমেইন এড্রেস এ ভিজিট করুন, দেখতে পারবেন আপনার কাঙ্খিত ওয়েবসাইট তৈরি হয়ে গিয়েছে।

All Sites এ গেলে দেখতে পারবেন আপনার কয়টি ওয়েবসাইট তৈরি করা আছে আইটি নাট ওয়েবসাইট বিল্ডার দ্বারা।

Login to the site অপশন থেকে ওয়েবসাইটের ব্যাকেন্ডে লগিন করুন।

ওয়েবসাইটের ব্যাকেন্ড থেকে যাবতীয় কাজ-কর্ম করতে পারবেন।

Dashboard- থেকে ওয়েবসাইটের যাবতীয় তথ্য দেখতে পারবেন।

Pages- পেজ থেকে ওয়েবসাইটে পেজ তৈরি করতে পারবেন, ইডিট করতে পারবেন।

Blog- থেকে পোস্ট করতে পারবেন,ক্যাটেগরী তৈরি করতে পারবেন।

Media- থেকে ছবি,ভিডিও যুক্ত করতে পারবেন।

Menus- থেকে ওয়েবসাইটের হেডার,ফুটার মেনু তৈরি করতে পারবেন।

Themes- থেকে থিম পরিবর্তন করতে পারবেন।

Users- থেকে নতুন ইউজার তৈরি করতে পারবেন, তথ্য পরিবর্তন করতে পারবেন।

Setting- থেকে যাবতীয় অনান্য প্রয়োজনীয় সেটিং করতে পারবেন।

আইটি নাট ওয়েবসাইট বিল্ডার ব্যবহারের সুবিধা:

  • ওয়েবসাইট বানাতে কোন ডেভেলোপারের সরনাপন্ন হতে হবে না।
  • এডভান্স টেকনিক্যাল নলেজের প্রয়োজন নেই।
  • ওয়েবসাইটের সিকিউরিটি নিয়ে চিন্তা নেই।
  • ওয়েবসাইট মেইনটেন্স করার কোন ঝামেলা নেই।

তো এই ছিলো একদম সহজে ওয়েবসাইট বানানোর উপায়, আশা করি আজকের এই পোস্টটি আপনাদের অনেক কাজে লাগবে। আইটি নাট ওয়েবসাইট বিল্ডার নিয়ে আপনাদের কোন প্রশ্ন থাকলে আমাদের সাথে নিদ্বিধায় যোগাযোগ করতে পারেন।

নোট: আইটি নাট ওয়েবসাইট বিল্ডার শুধু  আইটি নাট হোস্টিং এই পাবেন,অন্য কোন হোস্টিং কোম্পানীতে পাবেন না।

You May Also Like

8 Comments

    1. মোবাইল দিয়ে করাটা একটু কষ্টকর হবে। তবে করা যাবেনা এমন নয়। তবে বেস্ট ইউজার এক্সপেরিয়েন্স এর জন্য পার্সোনাল কম্পিউটার ইউজ করলে ভালো হয়।

  1. এইটা কিন্তু খুব খুব উপকারি হইছে সবার জন্য। দোয়া ও ভালোবাসা রইলো ।

    1. ধন্যবাদ ভাই। কারো লাগলে শেয়ার করবেন। 🙂

Leave a Reply

%d bloggers like this: